২১শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার

শোক দিবসেও বঙ্গবন্ধুর ছবি এঁকে প্রথম স্থান পেল সেই অদ্রিজা

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১১:৩৫ অপরাহ্ণ, ১৬ আগস্ট ২০১৭

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় আবারও বঙ্গবন্ধুর ছবি এঁকে পুরস্কার পেল অদ্রিজা কর (১১)। তবে এবার দ্বিতীয় নয় প্রথম স্থান অধিকার করেছে সে।

অদ্রিজা কর বরিশালের আগৈলঝাড়ার শ্রীমতি মাতৃ মঙ্গল বালিকা বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী এবং উপজেলা বন্দরের শান্তিরঞ্জন মিষ্টান্ন ভাণ্ডারের স্বত্বাধিকারী পরিমল করের মেয়ে।

এর আগে গত ২৬ মার্চ স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে আগৈলঝাড়া উপজেলা প্রশাসন শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অংশ নেয় আদ্রিজা। প্রতিযোগিতার বিষয় ছিল ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’। উপজেলা স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতিযোগিতায় প্রথম হওয়া ছবি স্বাধীনতা দিবসের কার্ডের প্রথম পৃষ্ঠায় এবং দ্বিতীয় হওয়া ছবি পেছনের পৃষ্ঠায় দিয়ে কার্ড ছাপানো হবে।

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রথম স্থান অধিকারী শিশুর ছবি প্রথম পৃষ্ঠায় এবং দ্বিতীয় স্থান অধিকারী অদ্রিজা করের আঁকা বঙ্গবন্ধুর ছবি কার্ডের পেছনে ছাপা হয়। এতেই বিপত্তি দেখা দেয়। ওই ছবি দিয়ে ছাপানো কার্ডে বঙ্গবন্ধুর ছবি ‘বিকৃত’ করা হয়েছে এবং এতে জাতির মানহানি হয়েছে অভিযোগে গত ৭ জুন আগৈলঝাড়ার তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গাজী তারিক সালমনের বিরুদ্ধে বরিশাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ৫ কোটি টাকার মানহানি মামলা করা হয়।

আদালতের সমন পেয়ে ১৯ জুলাই স্বেচ্ছায় বরিশাল চিফ মেট্রোপলিটন আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন তারেক সালমন। জামিন শুনানির সময় বাদী জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট ওবায়েদ উল্লাহ সাজু ছাড়াও আওয়ামীপন্থী অর্ধশতাধিক আইনজীবী জামিনের বিরোধিতা করেন।

এক পর্যায়ে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করলে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা ইউএনও তারিক সালমনের ডান হাতে একটি হাতকড়া চেপে ধরে দুই পাশে ও পেছনে পাহাড়া দিয়ে তাকে আদালতের হাজতখানায় নিয়ে যায়। দুই ঘণ্টা পর দুপুর দেড়টার দিকে বিচারক ফের তাকে জামিনের আদেশ দিলে ১০ হাজার টাকা বেল বন্ডে আদালতের হাজতখানা থেকে মুক্তি পান তিনি।

এ ঘটনা গণমাধ্যমে আসলে দেশ-বিদেশে তোলপাড় শুরু হয়। ইউএনও গাজী তারিক সালমনকে হাজতবাসের ঘটনা আওয়ামী লীগ ও প্রশাসনের অভ্যন্তরে ক্ষোভের সৃষ্টি করে। বিষয়টি নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানানা খোদ আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ইউএনও’র বিরুদ্ধে মামলা করায় জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদকের পদ থেকে ওবায়েদ উল্লাহ সাজুকে সাময়িক বহিষ্কার করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। বিষয়টি দেশীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বেশ আলোচিত হয়।

এ ঘটনার পর আদ্রিজা বেশ ভয় পায়। অদ্রিজা জানায়, পুরস্কার দেয়া স্যারকে পুলিশ ধরে নিয়ে যাওয়ার পর বাবা ফেসবুক থেকে আমার আঁকা বঙ্গবন্ধুর সেই ছবিটি সরিয়ে ফেলেছিল। কারও সঙ্গে কথাও বলতে দিত না বাবা-মা।

অদ্রিজার বাবা পরিমল কর জানান, আদ্রিজা ক্লাস ওয়ান থেকে ছবি আঁকে। এ জন্য বিভিন্ন সময় অনেক পুরস্কারও পেয়েছে সে। বঙ্গবন্ধুর ছবি আঁকতে তার ভালো লাগে। ওই ঘটনার পর আমরাও বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছিলাম। অনেক প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে। কোনো সমস্যা আছে কিনা জানতে আত্মীয়-স্বজনও ফোন দিয়েছে ।

তবে থেমে থাকেনি আদ্রিজা। বঙ্গবন্ধুর প্রতি ভালোবাসা থেকে গত ১৪ আগস্ট সোমবার বিকেলে আগৈলঝাড়া শ্রীমতি মাতৃমঙ্গল বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আগৈলঝাড়া উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আয়োজিত চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অংশ নেয় আদ্রিজা।

আগৈলঝাড়া উপজেলার বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ৭৫ জন শিশু এ চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। এবারের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার বিষয় ছিল জাতীয় শোক দিবসের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ ছবি অঙ্কন। এ চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের ৩টি গ্রুপে ভাগ করা হয়।

শিশু শ্রেণী থেকে ১ম শ্রেণী পর্যন্ত “ক” গ্রুপ, ২য় শ্রেণী থেকে ৩য় শ্রেণী পর্যন্ত “খ” গ্রুপ ও ৪র্থ শ্রেণী থেকে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত “গ” গ্রুপ। “ক” গ্রুপ থেকে ১ম স্থান অধিকার করে পার্থ হালদার, “খ” গ্রুপ থেকে ১ম স্থান অধিকার করে শ্যামা দাস এবং এবারে “গ” গ্রুপ থেকে ১ম স্থান অধিকার করে অদ্রিজা কর।

গত ১৫ আগস্ট সকালে আগৈলঝাড়া শ্রীমতি মাতৃমঙ্গল বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আগৈলঝাড়া উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এ চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আশ্রাফ আহমেদ রাসেল।

ইউএনও আশ্রাফ আহমেদ রাসেল সাংবাদিকদের বলেন, বিচারকদের সিদ্ধান্তে অদ্রিজা করের হাতে আঁকা ছবিটি “গ” গ্রুপ থেকে ১ম স্থান লাভ করেছে। পুরস্কার পেয়ে দারুন উচ্ছ্বসিত দেখাচ্ছিল আদ্রিজাকে। অভিভাবকরাও মেয়ের পুরস্কার প্রাপ্তিতে আনন্দ প্রকাশ করেছে।”

21 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন