৭ মিনিট আগের আপডেট বিকাল ১:০ ; বুধবার ; জানুয়ারি ২৭, ২০২১
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

সন্তান প্রতিবন্ধী হওয়ায় স্ত্রীকে তালাক দিলেন স্বামী!

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
৪:২৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৩, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল:: সন্তান শারীরিক প্রতিবন্ধী হওয়ায় এক গৃহবধুকে তালাক দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার ডাকযোগে তালাকের নোটিশ হাতে পান পাবনার চাটমোহরের দুলালী খাতুন।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার ডিবিগ্রাম ইউপির কাটাখালি গ্রামের আবুল হোসেনের মেয়ে দুলালী। ছোটবেলায় বাবা হারানো দুলালীর মা খইচন বেওয়া মানুষের বাড়ি কাজ করে অনেক কষ্টে একমাত্র মেয়েকে বড় করেন। বছর পাঁচেক আগে এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে এবং আত্মীয় স্বজনদের কাছ থেকে ধার-দেনা করে একই এলাকার কান্দিপাড়া গ্রামের রব্বানী হোসেনের ছেলে দিনমজুর আল-আমিন হোসেনের সঙ্গে দুলালীর বিয়ে দেন। বিয়েতে যৌতুক হিসেবে নগদ ১০ হাজার টাকা, একটি বাইসাইকেলসহ নানা উপহার সামগ্রী দেয়া হয়।

দেনমোহরের টাকা বুঝিয়ে না দিয়েই ৫ জুলাই চাটমোহর পৌর শহরের ম্যারেজ রেজিস্টার আবদুর রাজ্জাকের কাজী অফিসে গিয়ে আল-আমিন হোসেন তালাক নামায় স্বাক্ষর করে কাগজ নিজের কাছে গোপন করে রাখেন। সম্প্রতি আল-আমিন সেই তালাক নোটিশ ডাকযোগে দুলালীর কাছে পাঠান। শনিবার তা হাতে পান দুলালী। সোমবার কাটাখালি গ্রামে দুলালীর মায়ের বাড়িতে গিয়ে কথা হয় দুলালী খাতুনের সাথে। এ সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

দুলালী বলেন, প্রতিবন্ধী সন্তান জন্ম দেয়া কী আমার অপরাধ? প্রতিবন্ধী সন্তান জন্ম দিয়েছি বলে স্বামী-শ্বশুর, শাশুড়ি মারধর করে আমাকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছিলেন। এখন স্বামী তালাক দিল! আমি স্বামীর সংসার করতে চাই। আমি এর ন্যায়বিচার চাই।

দুলালীর মা খইচন বেওয়া জানান, বিয়ের দুই বছর পর দুলালীর ঘরে ছেলে সন্তান ‘দুর্জয়’ জন্ম নেয়। কিন্তু দুর্জয় শারীরিক প্রতিবন্ধী হওয়ায় দুলালীর জীবনে অভিশাপ নেমে আসে। এর জন্য দুলালীকে দায়ী করেন আলামিন, তার বাবা রব্বানী হোসেন এবং শাশুড়ি ফরিদা খাতুন দুলালীকে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করে বাড়ি থেকে বের করে দেন। মায়ের বাড়ি ফিরে ন্যায়বিচার চেয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বরসহ গ্রাম প্রধানদের কাছে দুলালী বারবার ধর্ণা দিয়েও মেলেনি কোনো প্রতিকার।

তবে আলআমিন হোসেন জানান, প্রতিবন্ধী সন্তানের জন্য তালাক দেইনি। কার্যকলাপের কারণে তালাক দিয়েছি। ছেলে আমার যেহেতু, সেহেতু দায়িত্বও আমার। তালাক নোটিশ গোপন করলেন কেন এ ব্যাপারে জিজ্ঞেস করলে তিনি ফোনের সংযোগ কেটে দেন।

চাটমোহরের ইউএনও সৈকত ইসলামকে বিষয়টি জানালে তিনি বলেন, স্বামী বা স্ত্রী যে কেউ তালাক দিতে পারে। তবে প্রতিবন্ধী সন্তান জন্ম দেয়ার কারণে যদি এমন ঘটনা ঘটে তবে বিষয়টি অমানবিক। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যানের সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দেশের খবর

আপনার মতামত লিখুন :

 

এই বিভাগের অারও সংবাদ
ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
শাহ মার্কেট (তৃতীয় তলা),
৩৫ হেমায়েত উদ্দিন (গির্জা মহল্লা) সড়ক, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: ০৪৩১-৬৪৮০৭, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  গৌরনদী পৌরসভা: দুই প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ৮  সহবাসে রাজি নয় ষষ্ঠ স্ত্রী, সপ্তম স্ত্রীর খোঁজে ৬৩ বছরের বৃদ্ধ  ভোটকেন্দ্রের বাইরে ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করলেন ভাই  কলাপাড়া পৌর নির্বাচন: স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীকে কোপাল নৌকার কর্মীরা  চট্টগ্রামে ভোটকেন্দ্র থেকে বিএনপি প্রার্থীর এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ  ট্রাকচাপায় তিন মোটরসাইকেল আরোহী নিহত  মাধবপাশায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সাবু কাজীর শোডাউন  বিএনপি নেত্রী জিবা খানকে নলছিটিতে ঢুকতে বাঁধা প্রদানের অভিযোগ  আবারও নির্বাচনী মাঠে মাছুদ খান  বঙ্গবন্ধু প্রিমিয়ার লিগে বাউফল পৌরসভা ফাইনালে