২২ িনিট আগের আপডেট বিকাল ২:০ ; বৃহস্পতিবার ; ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২৪
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

সাদিক প্রার্থী হলে চাপে থাকবেন ‘নৌকার মাঝি’ শামীম!

বরিশালটাইমস রিপোর্ট
৫:৫৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৮, ২০২৩

সাদিক প্রার্থী হলে চাপে থাকবেন ‘নৌকার মাঝি’ শামীম!

হাসিবুল ইসলাম, বরিশাল:: দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বরিশাল সদর আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থিতার ঘোষণা দিয়েছেন। তার পক্ষে মঙ্গলবার রিটার্নিং কর্মকর্তা বরিশাল জেলা প্রশাসক শহিদুল ইসলামের কাছ থেকে মনোনয়নপত্রও সংগ্রহ করেছেন তার অনুগত আ’লীগ নেতাকর্মীরা। বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদিক দলীয় সমর্থন চেয়ে মনোনয়ন ফরমও সংগ্রহ করেছিলেন। কিন্তু এই আসনের বর্তমান এমপি পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অবসরপ্রাপ্ত) জাহিদ ফারুকের ওপরেই আস্থা রেখেছে আওয়ামী লীগ। জাহিদ ফারুক নৌকা নিয়ে নির্বাচন করলেও মনোনয়ন বঞ্চিতদের স্বতন্ত্র হিসেবে ভোটে অংশ নেওয়ার সুযোগ রেখেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। ফলে দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত কেউ স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে পারছেন, আর এই সুবিধাটি লুফে নিচ্ছেন বরিশাল সিটির সাবেক মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। যদি শেষ পর্যন্ত সাদিক আব্দুল্লাহ প্রার্থী হিসেবে মাঠে থেকে যান তাহলে কর্মী-অনুসারীদের বড় একটি তার দিকে ধাবিত হবেন। কারণ তিনি মহানগরের শীর্ষস্থানীয় রাজনৈতিক হলেও আওয়ামী লীগের সকল সিদ্ধান্ত গৃহিত হয় তার নির্দেশে।

জানা গেছে, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে সাদিক আব্দুল্লাহ ইতিমধ্যে প্রাকপ্রস্তুতি শেষ করেছেন। নেতাকর্মীদের সাথে দুদিন শ্বাসরুদ্ধ বৈঠকে প্রার্থী হওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন। এমনকি তার অনুগত বরিশাল শহরসহ সদর উপজেলার নেতাকর্মীদের একত্রিত করতে কাজও শুরু করে দিয়েছেন।

এদিকে জাহিদ ফারুক নৌকা নিয়ে মঙ্গলবার বরিশালে এসে পৌছেছেন। তাকে শহরের গড়িয়ারপাড় থেকে বান্দরোড পর্যন্ত ফুল ছিটিয়ে অভিনন্দন জানিয়েছে হাজার হাজার নেতাকর্মী। তার পক্ষেও আজ মনোনয়নপত্র জেলা প্রশাসকের কাছ থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। একই দিনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী ইকবাল হোসেন তাপসও বরিশাল সদর আসনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন, তিনি চলতি বছরের জুন মাসে সিটি নির্বাচনে মেয়র হিসেবে অংশগ্রহণ করে নৌকার প্রার্থী আবুল খায়ের খোকন সেরনিয়াবাতের কাছে বিপুলসংখ্যক ভোটে বিজিত হয়েছেন।

সাদিক আব্দুল্লাহ ওই সিটি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন, কিন্তু আওয়ামী লীগ তার আপন চাচা খোকন সেরনিয়াবাতকে মনোনীত করে। অবশ্য সেই সময়ই মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে সাদিক ঘোষণা দিয়েছিলেন সংসদ নির্বাচনে বরিশাল সদর আসনে প্রার্থী হবেন। কিন্তু প্রভাবশালী এই নেতা এবারও নিজ দলে উপেক্ষিত রয়ে গেলেন, তবে তার নির্বাচনে অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে সুযোগ করে দিয়েছেন খোদ আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, তিনি বলেছেন, কোনো আসনে যেনো কেউ বিনাভোটে না নির্বাচিত হয়। এবং প্রতিটি আসনে যেনো মূল প্রার্থীর বাইরেও একজন ডামি প্রতিদ্বন্দ্বী রাখা হয়।

আওয়ামী লীগ সভাপতির এমন বক্তব্যের পর দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত অনেকেই স্বতন্ত্র প্রার্থীতার ঘোষণা দিয়েছেন, তেমনটি বরিশালের সাবেক মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহও করতে যাচ্ছেন। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, আওয়ামীলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন থেকে সাদিক আব্দুল্লাহ যদি প্রাথী হন, তাহলে জাহিদ ফারুকের নৌকার পক্ষে কাজ করবেন কারা?

সাদিক আব্দুল্লাহ বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতা এবং তার পিতা আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ জেলা আ’লীগের সভাপতি। এছাড়া আওয়ামী লীগের পদধারী নেতা যারা আছেন তার অধিকাংশই সাদিক বন্দনা করতে দেখা যায়। এমনকি সাদিক স্বতন্ত্র প্রার্থিতার ঘোষণা দেওয়ার পর আওয়ামী লীগের একটি বড় অংশটি তার সাথে থাকার অঙ্গীকার করেছে। সেখানে নৌকা নিয়ে নির্বাচনী মাঠে নামলে জাহিদ ফারুককে কিছুটা চাপেতো অবশ্যই থাকতে হবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা।

তাদের ভাষায়, ২০১৮ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাহিদ ফারুক দলীয় মনোনয়ন পেলে তার পক্ষে কর্মী-অনুসারীদের নিয়ে ঝাপিয়ে পড়েছিলেন তৎকালীন সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। বিএনপির প্রভাবশালী প্রার্থী অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ারকে বিপুল সংখ্যক ভোটে পরাজিত করে এমপি হয়েছিলেন জাহিদ ফারুক শামীম। অবশ্য নির্বাচনে ব্যাপক ভূমিকা রাখার জন্য তখন সাদিক আব্দুল্লাহকে ভাইয়ের ছেলে সম্বোধন করে তার প্রসংশাও করেছিলেন। কিন্তু সেই সম্পর্ক আর বেশি দীর্ঘ হয়নি স্থানীয় রাজনৈতিক বিবাদ এবং দুজনের নীতিগত সিদ্ধান্তের কারণে।

রাজনৈতিক সূত্র জানায়, জাহিদ ফারুক এবং সাদিক আব্দুল্লাহ’র মধ্যেকার দ্বন্দ্ব একটা সময় প্রকট আকার ধারন করে। বিগত সময়ে সভা-সমাবেশে উভয় নেতা একে অপরকে তেরছা মন্তব্য করলে বরিশাল আওয়ামী লীগের রাজনীতি ক্রমাগতভাবে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। একটা পর্যায়ে উভয় নেতার সম্পর্ক তৈরি হয় ‘সাপেনেউলে’ এবং তারা নিজেদের মতো করে রাজনৈতিক মাঠ গোছাতে শুরু করেন। সাদিক আব্দুল্লাহ মহানগর আওয়ামী লীগের নেতা হওয়ায় তিনি তার মতো করে ছাত্র, যুব, শ্রমিক এবং আ’লীগসহ সকল অঙ্গসংগঠনের ইউনিট কমিটিতে তার মনপুত কর্মীদের পদপদবি দিয়েছেন। বিপরিতে বরিশালে জাহিদ ফারুকের রাজনৈতিক অবস্থান অতটা শক্তপোক্ত না হলেও তিনি পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী হিসেবে খুব আলোচিত হয়েছেন কর্মদক্ষতার পরিচয় দিয়ে।

রাজনৈতিকেরা মনে করেন, জাহিদ ফারুক একজন ক্লিন ইমেজের ব্যক্তি এবং তিনি সরকারের সফল প্রতিমন্ত্রীও। তাকে বরিশাল সদর আসনে ফের নৌকা দেওয়ার ক্ষেত্রে তার গুণাবলীগুলো বিবেচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছিল। ফলে আ’লীগ তাকে আর তালিকা থেকে বাদ দিতে পারেননি। তবে সাদিক আব্দুল্লাহ এবার যেহেতু মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থিতা করতে যাচ্ছেন সেক্ষেত্রে নির্বাচনী মাঠে জাহিদ ফারুকের কর্মী ভাটা পড়াটা অস্বাভাবিক নয়। কারণ স্থানীয় আওয়ামী লীগকে নিয়ন্ত্রণ করেন সাদিক আব্দুল্লাহ, যার চার ভাগের তিন ভাগ নেতাকর্মীই তাকে সমীহ করে চলেন। অবশ্য জাহিদ ফারুকও বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি, কিন্তু তার পাশে আওয়ামী লীগের পদধারী নেতার সংখ্যা খুব কম।

ফলে শহরময় এমন আলোচনা হচ্ছে যে, সাদিক আব্দুল্লাহ স্বতন্ত্র প্রার্থী হলে এক ধরনের চাপের মুখে থাকবেন জাহিদ ফারুক শামীম। কারণ সাদিক আব্দুল্লাহ মতো কর্মীবাহিনী নেই ‘নৌকার মাঝি’ জাহিদ ফারুকের। নৌকার বিরুদ্ধে সাদিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়া নিয়ে বরিশালের রাজনৈতিক মহলে বিস্তর আলোচনা চলছে।

এনিয়ে সাদিক অনুসারীদের ভাষ্য হচ্ছে, খোদ আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বলেছেন, নির্বাচনে ডামি প্রার্থী থাকবেন এবং কেউ চাইলে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে পারবেন, সেখানে আর ভাবার কিছু নেই। সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত, ‘খেলা হবে’।

যদিও এই বিষয়টি নিয়ে জাহিদ ফারুক বা তার অনুসারীরা এখন পর্যন্ত কোনোরুপ মন্তব্য করেননি। ধারনা করা হচ্ছে, তারা কেন্দ্রীয় কোনো নির্দেশনার অপেক্ষায় আছেন। তবে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নৌকার পক্ষে কাজ না করলেও যে ক্ষতি হবে, তাতে তৃতীয় কোনো প্রার্থী সুবিধা পাওয়ার বিষয়টি আলোচনায় থাকছে। এমতাবস্থায় আওয়ামী লীগের হাইকমান্ড কি নির্দেশনা দেবেন, সেই সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে।

জানা গেছে, ফরিদপুর ৪ আসনে এবারও দলীয় মনোনয়ন চেয়ে বঞ্চিত হয়েছেন নিক্সন চৌধুরী। তার আসনে আওয়ামী লীগ জাফর উল্লাহকে প্রার্থী দিয়েছে, যিনি নিক্সন চৌধুরীর সাথে দুইবার প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে হেরেছেন। তাদের উভয়ের মধ্যে ‘দা-কুমড়ো’ সম্পর্ক। মনোনয়ন বঞ্চিত নিক্সন এবারও স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

অত্যন্ত প্রতাপশালী নেতা নিক্সনের দেখানো পথেই কী হাঁটতে চলছেন বরিশালের সাদিক আব্দুল্লাহ, এমন একটি প্রশ্ন সামনে এসেছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের এই প্রশ্নে উত্তর এখনই মেলানো অনেকাংশে ভার বলে মন্তব্য পাওয়া গেছে।’

বরিশালের খবর

আপনার ত লিখুন :

 
ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
ইসরাফিল ভিলা (তৃতীয় তলা), ফলপট্টি রোড, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: +৮৮০২৪৭৮৮৩০৫৪৫, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: barishaltimes@gmail.com, bslhasib@gmail.com
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  অনুষ্ঠানের জন্য ওসির টাকা প্রয়োজন: তাই পুলিশ সদস্যের চাঁদাবাজি  যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীর শরীর ঝলসে দিয়ে ঘরে আটকে রাখেন শিক্ষক স্বামী  মিলছে না ফাইনালের টিকিট  বিএনপি নেতা আলালকে ভারতে যেতে বাধা  বিএনপির অবশিষ্ট কারাবন্দি নেতাকর্মীদের মুক্তির আহ্বান জাতিসংঘের  পদ্মা ও মেঘনায় মধ্যরাত থেকে মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা  মিলারের বিয়ে, কী করবে বরিশাল  ড. ইউনূসকে আপিল করতে ৫০ কোটি টাকা দিতে হবে: হাইকোর্ট  বিনামূল্যে সেবা দিতে আসা ৫০ বিদেশি ডাক্তারকে জরিমানা, ক্ষুব্ধ মোমেন  সাকিবের রংপুরকে বিদায় করে ফাইনালে তামিমের বরিশাল