১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার

সিইসির বাড়ির পাশে ইউপি নির্বাচনে সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের মহড়া

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৬:১৪ অপরাহ্ণ, ০৮ এপ্রিল ২০১৭

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) নুরুল হুদার বাড়ির পাশে আগামী ১৬ এপ্রিল ইউপি নির্বাচন। পটুয়াখালীর দশমিনার ৭ নম্বর চরবোরহান ইউনিয়নে রাত হলেই চলে বহিরাগত অজ্ঞাত সন্ত্রাসীদের অস্ত্র মহড়া।

সাধারণ ভোটাররা আতঙ্কিত। এদিকে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুলিশের অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।

আগামী ১৬ এপ্রিল নব গঠিত ৭ নম্বর চরবোরহান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। উপজেলা সদর থেকে এ ইউনিয়নে জলপথে দূরত্ব প্রায় ২৫ কিলোমিটার। বুড়াগৌরঙ্গ নদীর ঠিক মাঝখানে ইউনিয়নটির অবস্থান। ২০ মার্চ চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

চেয়ারম্যান পদে ৭ জন, সাধারন ওয়ার্ডে ৩৮ জন মেম্বার ও ১৩ জন সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীরা হলেন- বিএনপি’র মো. শামিম হাওলাদার (ধানের শীষ), সরকার দলীয় নজির সরদার (নৌকা), আ’লীগের বিদ্রোহীদের মধ্যে মো. আবু বক্কর ছিদ্দকী (টেলিফোন), মো. তমিজ উদ্দিন (ঢোল), মো. এনায়েতুর রহমান (আনারস),স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শাহজাদা তোহামিন (ঘোড়া) এবং ইশা আন্দোলনের মো. শামছুল হক (হাতপাখা)।

তাদের মধ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বিএনপি’র মো. শামিম (ধানের শীষ), আ’লীগের বিদ্রোহী বহিস্কৃত আবু বক্কর ছিদ্দকী (টেলিফোন) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শাহজাদা তোহামিন (ঘোড়া) প্রতীকের মধ্যে। নির্বাচনের প্রচারণার শুরুতেই আ’লীগের প্রর্থীর সমর্থকরা, বিদ্রোহী, বিএনপি’র সমর্থক ও সাধারণ ভোটারদের ভয়ভীতি, হুমকি পাল্টা হুমকি দিয়ে আসছে একে অপরকে।

অভিযোগ রয়েছে- রাত হলে সরকারদলীয় প্রার্থীর কর্মীরা বহিরাগত সন্ত্রাসীদের নিয়ে অস্ত্র নিয়ে মহড়া দেন।’

তারা গোপনে কতিপয় কর্মকার দিয়ে দেশীয় অস্ত্র তৈরি করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার রনগোপালদি ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডে অভিযান চালিয়ে ৮ টি রামদা (দেশীয় অস্ত্র)সহ গোবিন্দ্র কামারকে গ্রেফতার করেছেন।

গ্রেফতার কামার গোবিন্দ্র স্থানীয় জনতার সামনে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন অস্ত্রগুলো আ’লীগের নৌকা প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. নজির সরদারের ভাগিনা চরবোরহান ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার পদ প্রার্থী মো. মজিবর রাঢ়ী তৈরি করতে নির্দেশ দিয়েছেন। তবে সরকার দলীয় প্রার্থী মো. নজির সরদার এ অভিযোগ অস্বীকার করে মিথ্যা ও বানোয়াট বলে দাবি করেছেন।

ওই ইউনিয়নে মোট ভোটার সংখ্যা ৩ হাজার ৬৬২ জন।

দশমিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান, সব ভোট কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ন হওয়ায় ৪ এপ্রিল অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। শেষ মূহূর্তে প্রধান নির্বাচন কমিশনার এ কে এম নুরুল হুদার বাড়ির পাশের উপজেলায় ইউপি নিবাচন সুষ্ঠু হবে বলে সকল প্রার্থীর প্রত্যাশা।”

22 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন