২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

সেই উপজেলা চেয়ারম্যানসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণের আদেশ

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০১:৫৫ অপরাহ্ণ, ৩০ মে ২০১৭

ঝালকাঠিতে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় কাঁঠালিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া সিকদারসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে কাঁঠালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কমকর্তাকে (ওসি) নিয়মিত মামলা (এফআইআর-ভুক্ত) গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।।

মঙ্গলবার (৩০ মে) সকাল ১১টায় মামলার শুনানি শেষে আদালতের বিচারক রুবাইয়া আমেনা এই আদেশ দেন। মামলার অপর আসামিরা হলেন- চেয়ারম্যানের সহযোগী মনির হোসেন, শহিদুল ইসলাম, সেলিম হাওলাদার, মো. আনিচ, মনির খান, এনাম কাজী, মিলন মাস্টার ও মিলন সিকদার।

বাদীর আইনজীবী আক্কাস সিকদার জানান, নির্যাতনের শিকার কাঁঠালিয়ার সাংবাদিক এইচএম বাদল বাদি হয়ে ঝালকাঠির জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে গত ২১ মে একটি মামলা দায়ের করেন। পরে আদালত মঙ্গলবার শুনানির জন্য দিন ধার্য করেন। শুনানি শেষে আদালত এ ঘটনায় নিয়মিত মামলা হিসেবে গ্রহণের জন্য কাঁঠালিয়া থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় বনানীর রেইনট্রি হোটেলের মালিক ঝালকাঠি-১ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য বিএইচ হারুনকে নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ব্যাপকভাবে শেয়ার হয়। ওই সংবাদে গত ১৬ মে লাইক দেওয়ার অভিযোগে আঞ্চলিক পত্রিকা দৈনিক বরিশাল প্রতিদিনের কাঁঠালিয়া উপজেলা প্রতিনিধি এইচএম বাদলকে তুলে নিয়ে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া সিকদার ও তার লোকজন।

এ সময় হামলাকারীরা সাংবাদিক বাদলকে জিম্মি করে ৩শ টাকার সাদা স্ট্যাম্পে জোরপূর্বক স্বাক্ষর নেয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ঝালকাঠি সদর হাসপাতলে ভর্তি করে। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।”

9 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন