২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

স্বতন্ত্রশূন্য ৮০ আসনে নির্ভার আওয়ামী লীগের ৭৪ প্রার্থী

বিশেষ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১১:১৩ পূর্বাহ্ণ, ২৩ ডিসেম্বর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল : দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী নেই এমন আসনের সংখ্যা ৮০টিতে দাঁড়িয়েছে। ঢাকার ২০টি আসনের মধ্যে ৮টিই স্বতন্ত্রশূন্য। স্বতন্ত্রশূন্য আসনগুলোর ৫টিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী নেই। ৪টিতে রয়েছেন জাতীয় পার্টি, ১টিতে ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থী। বাকি ৭৪ আসনে রয়েছেন আওয়ামী লীগের হেভিওয়েট প্রার্থীরা। ২২০ আসনে স্বতন্ত্র প্রতিদ্বন্দ্বীর সংখা দাঁড়িয়েছে ৩৮৭ জনে। সর্বশেষ ময়মনসিংহ-১১ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াদুদ হাইকোর্ট থেকে তার প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন। নির্বাচন কমিশন প্রার্থিতা প্রত্যাহারের পর ৩৮২ জন স্বতন্ত্র প্রার্থীর তথ্য জানায়। পরে হাইকোর্ট থেকে প্রার্থিতা ফিরে পেয়ে যোগ হন আরও ৫ জন। এ সংখ্যা আগামী ২ জানুয়ারি পর্যন্ত পরিবর্তন হতে পারে। নির্বাচন বিশেষজ্ঞদের মতে, এবার ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ আর জাতীয় পার্টির সঙ্গে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।

নির্বাচন কমিশন থেকে পাওয়া আসনভিত্তিক প্রার্থী তালিকা বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, যে ৮০টি আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী নেই সেসব আসনের ৫টি বাদে অন্য ৭৫টিতেই আওয়ামী লীগ প্রার্থীর শক্ত কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই। এসব আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী লীগের বর্ষীয়ান নেতা আমির হোসেন আমু, তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়নমন্ত্রী তাজুল ইসলাম, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, শেখ হেলাল, শামীম ওসমান, সাবের হোসেন চৌধুরী, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, মির্জা আজম, শাহজাহান খান, ক্যাপ্টেন (অব.) তাজুল ইসলাম, কামাল আহমেদ মজুমদার, ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ, মো. আব্দুস শহীদ, ঢাকা দক্ষিণের সাবেক মেয়র সাঈদ খোকন, ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মর্তুজা ও সাকিব আল হাসান, চিত্রনায়ক ফেরদৌস, তানভীর শাকিল জয় ও প্রাণগোপাল দত্তের মতো হেভিওয়েট প্রার্থীরা। আর স্বতন্ত্রবিহীন ৫টিতে রয়েছেন জাতীয় পার্টির সেলিম ওসমান, রুহুল আমিন হাওলাদার এবং ওয়ার্কার্স পার্টির ফজলে হাসান বাদশার মতো প্রার্থীরা।

যেসব আসন স্বতন্ত্রশূন্য :

নির্বাচন কমিশনের তালিকায় যেসব আসন স্বতন্ত্রশূন্য সেগুলো হচ্ছে: পঞ্চগড়-১ ও ২, রংপুর-৪, কুড়িগ্রাম-১, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩, নওগাঁ-২, রাজশাহী-২ ও ৩, সিরাজগঞ্জ-১, ২, ৩ ও ৪, পাবনা-৫, মাগুরা-১ ও ২, নড়াইল-২, বাগেরহাট-১, খুলনা-৪, সাতক্ষীরা-৩, বরগুনা-২, পটুয়াখালী-১ ও ২, ভোলা-১ ও ২, বরিশাল-১, ঝালকাঠি-২, টাঙ্গাইল-৮, জামালপুর-১ ও ৩, ময়মনসিংহ-৫, নেত্রকোণা-৪, কিশোরগঞ্জ-৪, মানিকগঞ্জ-৩, ঢাকা-১, ৬, ৭, ৮, ৯, ১১, ১২ ও ১৫, নারায়ণগঞ্জ-৪ ও ৫, রাজবাড়ী-১ ও ২, ফরিদপুর-১, গোপালগঞ্জ-৩, মাদারীপুর-১ ও ২, শরীয়তপুর-২, সুনামগঞ্জ-২, সিলেট-১, ২ ও ৪, মৌলভীবাজার-৩ ও ৪, হবিগঞ্জ-৩, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ ও ৬, কুমিল্লা- ১, ৩, ৭, ৯ ও ১০, চাঁদপুর-১ নোয়াখালী-৫ ও ৬, চট্টগ্রাম-৪, ৬, ৯ ও ১৩, কক্সবাজার-১,৩ ও ৪। এ ছাড়া তিন পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ি, রাঙামাটি ও বান্দরবানের ৩টি আসন স্বতন্ত্রশূন্য।

7 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন