ভোলার মনপুরা উপজেলা সংলগ্ন মেঘনা নদী থেকে জলদস্যুদের দাবি মোতাবেক মুক্তিপণ দিয়ে অবশেষে মুক্তি পেলেন অপহৃত সেই ৫ জেলে। বৃহস্পতিবার (২৯ জুন) বেলা ১১টার দিকে দাবির মুক্তিপণ আদায় করে অপহৃত জেলেদেরকে ছেড়ে দেয় জলদস্যুরা।

তারা হলেন কবির মাঝি, কালাম মাঝি, বাতেন মাঝি, জাহের মাঝি এবং নেজু মাঝি।

ফিরে আসা জেলেরা ও তাদের পরিবার সূত্র এ খবর নিশ্চিত করেছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বুধবার (২৮ জুন) ভোরে মনপুরার চরপাতালিয়াসংলগ্ন মেঘনা নদীতে ইলিশ মাছ ধরতে জাল ফেলতে গেলে হাতিয়ার জলদস্যু বাহিনী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে জেলেদের ওপর হামলা করে। এ সময় জলদস্যুরা অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে খলিল মাঝির ট্রলারসহ কবির মাঝি, কালাম মাঝি, বাতেন মাঝি, জাহের মাঝি, নেজু মাঝি এবং শফিক মাঝিকে অপহরণ করে।

জলদস্যুরা ট্রলারে থাকা বাকি জেলেদের চরপাতালিয়া চরে নামিয়ে দিয়ে যায়। অপহৃত পাঁচ মাঝি ও ট্রলারটি ছাড়িয়ে আনতে জলদস্যু বাহিনী মুক্তিপণ দাবি করে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে জলদস্যুদের দাবি করা মুক্তিপণের বিনিময়ে তারা ছাড়া পান।

খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে মনপুরা থানার ওসি মো. শাহীন খান বরিশালটাইমসকে বলেন, ‘অপহৃত জেলেরা ফিরে এসেছেন। তবে, মুক্তিপণের কথা জানা যায়নি।”