মুলাদীতে রাতের আঁধারে ১৭ গরু লুট, ছয়টি উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল: মুলাদীতে রাতের আঁধারে দুর্র্বৃত্তরা ১৭টি গরু লুট করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার বাটামারা ইউনিয়নের তয়কা ও চরআলগী গ্রামে এ লুটের ঘটনা ঘটে। শুক্রবার অভিযান চালিয়ে লুটের ছয়টি গরু উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে আটক করতে পারেনি।

টুমচর গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা রুবেল শাহ হত্যা মামলার আসামিদের সহযোগিতায় সফিপুর ইউনিয়নের উত্তর বালিয়াতলী এবং পার্শ্ববর্তী কালকিনি উপজেলার বাঁশগাড়ী ইউনিয়নের লোকজন গরু লুট করেছে বলে দাবি করেছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।

বাটামারা ইউনিয়নের তয়কা গ্রামের আজাহার মোল্লা জানান, টুমচর গ্রামের আওয়ামী লীগ নেতা রুবেল শাহ হত্যার পর থেকে তয়কা ও টুমচরসহ আশপাশের এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। রাতে ভয়ে কেউ ঘর থেকে বের হতে পারে না। বৃহস্পতিবার রাতে কে বা কারা তার চারটি গরু নিয়ে যায়। গরু নেওয়ার শব্দ পেলেও প্রাণভয়ে কেউ ঘর থেকে বের হননি।

এছাড়া একই গ্রামের নাসির ফকিরের দুটি, হুমায়ুন বেপারীর দুটি, মালেক ব্যাপারীর দুটি, সিরু হাওলাদারের চারটি এবং চরআলগী গ্রামের মানিক সরদারের চারটি গরু নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। থানার ওসি মো. জাকারিয়া জানান, তয়কা ও চরআলগী গ্রাম থেকে গরু নেওয়ার সংবাদ পেয়ে ওই গ্রামে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। উত্তর বালিয়াতলীসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ছয়টি গরু উদ্ধার করা হয়েছে। বাকি গরু উদ্ধার এবং জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।