বরিশাল: বরিশালের কীর্তনখোলা নদীতে লঞ্চ ও স্টিমারের সংঘর্ষে পাঁচজন নিহত হওয়ার ঘটনায় লঞ্চটির রুট পারমিট সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে সুরভী লঞ্চ দায়ী হওয়ার বিষয়টি প্রতীয়মান হওয়ায় এর রুট পারমিট সাময়িক স্থগিত করা  হয়।’

রুট পারমিট স্থগিতের বিষয়টি সোমবার বেলা ২টার দিকে নিশ্চিত করেছেন বরিশাল বন্দর কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান।

তিনি জানান- বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান এম মোজাম্মেল হকের নির্দেশে লঞ্চটির রুট পারমিট সাময়িক স্থগিত করা হয়েছে। যে কারণে সোমবার রাতে লঞ্চটির ঢাকা থেকে ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও তা আর ছাড়বে না।’

এর আগে সোমবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে চরবাড়িয়া এলাকায় বিআইডব্লিউটিসির স্টিমার পিএস মাহসুদকে সুরভি-৭ ধাক্কা দেয়। এ ঘটনায় অন্তত পাঁচজনের মৃত্যু হয়। আহত হয় আরও ৫জন।’

এদিকে স্টিমার ও লঞ্চের সংঘর্ষে ৫ জন নিহতের ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি করেছে বরিশাল জেলা প্রশাসন। ৭ সদস্যের এ কমিটিকে আগামী ৩ কার্যদিবসের মধ্যে দুর্ঘটনা প্রতিরোধে করণীয় ও সুস্পষ্ট সুপারিশসহ প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।’

তদন্ত কমিটিতে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসককে (সার্বিক) আহ্বায়ক এবং বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার, সিভিল সার্জন, নৌ পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, বিআইডব্লিউটিএর নির্বাহী প্রকৌশলী, বিআইডব্লিউটিসির নির্বাহী প্রকৌশলী এবং ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের উপ-পরিচালককে প্রতিনিধি করা হয়েছে।’