‘হত্যা নয়, রক্তপাত নয়। মনুষ্যত্বের জয় হোক’- এই বক্তব্যকে উপজীব্য করে বরিশাল জেলা শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে মঞ্চে এলো নতুন নাটক ‘সুরাক’। শাহমান মৈশানের লেখা নাটকটির পরিকল্পনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন হাসানুর রশীদ মাকছুদ। তিনি বরিশাল শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার।

গত ৭ ও ৮ আগস্ট সন্ধ্যায় বরিশালের অশ্বিনী কুমার হলে দর্শকদের উপস্থিতিতে এ নাটকের দুটি প্রদর্শনী হয়। এখানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. ইসরাফিল শাহীন।

নাটকটি প্রসঙ্গে নির্দেশক মাকছুদ বলেন, ‘মফস্বল শহরগুলোতে সংস্কৃতি চর্চা আরও বেগবান করার প্রয়াস থেকেই আমরা এ ধরনের বক্তব্য নির্ভর নাটক মঞ্চে এনেছি। আমাদের বরিশাল শহরে অভিনেতা-অভিনেত্রী খুব একটা নেই। মঞ্চের নতুন পুরনো সব নাট্যকর্মীকে উজ্জীবিত করার ভাবনা থেকেই নাটকটি মঞ্চায়ন করেছি আমরা।’

নাটকটির বক্তব্যটি এমন যে, তা সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয়কে রিপ্রেজেন্ট করে। তাছাড়া বর্তমান দেশীয় ও আন্তর্জাতিক প্রেক্ষাপটে ‘সুরাক’-এর মতো নাটক আরও বেশি বেশি মঞ্চস্থ হওয়ার প্রয়োজন আছে বলে মনে করি’। নাটকটি মঞ্চায়নে সার্বিক পরিকল্পনায় বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন আশিকুর রহমান লিয়ন ও প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলেন মেহেদী তানজির।

আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া দেশের ৬৪ জেলার মূল্যবোধের নাট্যোৎসবে ২ সেপ্টেম্বর ‘সুরাক’ মঞ্চায়ন হবে জাতীয় নাট্যশালয়। এ নাটকের গল্প আঁখিতারা গ্রামের দরিদ্র জেলে সাবিলককে ঘিরে।