পিরোজপুর: মঠবাড়িয়ায় মাইশা আক্তার কনা(০২) ও মাহিয়া আক্তার বেবী (নয় মাস) নামের দুই শিশু সন্তানকে হত্যা করে বিষপাণ করে আত্মহত্যা করলেন মা নাজমুন্নাহার লাইজু (২৬)।

লাইজু বেগম হারজী নলবুনিয়া গ্রামের মনিরুজ্জামান ফরিদের স্ত্রী।

ঘটনাটি ঘটেছে রোববার (১৪ আগস্ট) বিকেলে উপজেলার হারজী নলবুনিয়া গ্রামে। মনিরুজ্জামান ফরিদ উপজেলার গুদিঘাটা সরোজনি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

থানা পুলিশ রোববার সন্ধ্যায় নিহত তিন জনের লাশ উদ্ধার করেছে। ঘটনার পর থেকে মনিরুজ্জামান ফরিদ পলাতক রয়েছে।

জানাগেছে, উপজেলার হারজী নলবুনিয়া গ্রামের মৃত আলহাজ্ব বাহার আলী খানের ছেলে মনিরুজ্জমান ফরিদের সাথে প্রায় আড়াই বছর পূর্বে উপজেলার ধানীসাফা গ্রামের আঃ রব তালুকদারের মেয়ে নাজমুন্নাহার লাইজু’র বিয়ে হয়।

বিয়ের পর তাদের ঘরে মাইশা আক্তার কনা(০২) ও মাহিয়া আক্তার বেবী(নয় মাস) নামের দুইটি কন্যা সন্তান জন্ম নেয়।

মনিরুজ্জামান ফরিদের বরাত দিয়ে এলাকাবাসী জানায়, মনিরুজ্জামান ফরিদ রোববার সকালে স্কুলে যায়। বিকেলে স্কুল থেকে বাড়ি ফিরে ঘরের দরজা বন্ধ দেখতে পায়। পরে ডাকাডাকি করে কোনো সারা শব্দ না পেয়ে ঘরের দরজা ভেঙ্গে তিন জনকে মৃত দেখতে পান।

ধারনা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহের কারণে দুই শিশু সন্তানদের বিষপান করিয়ে হত্যা করে নাজমুন্নাহার লাইজু নিজেও বিষপান করে আত্মহত্যা করেন।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, মায়না তদন্তের জন্য নিহত তিন জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।