বার্তা পরিবেশক,অনলাইন:: জীবিকার তাগিদে দক্ষিণ আফ্রিকা গিয়ে ডাকাতের দেয়া আগুনে দগ্ধ হয়ে নিহত মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার ইমরানের (২৮) দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বুধবার (৩০ অক্টোবর) সকাল ১০টায় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

এর আগে মঙ্গলবার (২৯ অক্টোবর) সন্ধ্যায় দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে তার মরদেহ ঢাকা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়। সেখান থেকে মধ্যরাতে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার দ্বিতীয়াখণ্ড ইউনিয়নের মুজাফফরপুর খলিফাকান্দি এলাকায় তার বাড়িতে পৌঁছায় মরদেহ। ইমরানের প্রতিবেশী আবু বকর শিকদার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, সোমবার বিকেলে দক্ষিণ আফ্রিকায় ইমরানের প্রথম জানাজা শেষে পরিচিত বাংলাদেশিরা তার মরদেহ ইতিহাদ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে তুলে দেয়। ইমরানের মরদেহ বাড়িতে পৌঁছালে পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। শেষ বারের মতো তাকে এক নজর দেখতে শত শত মানুষ ভিড় জমায় বাড়িতে।

উল্লেখ্য, আর্থিক স্বচ্ছলতার আশায় দরিদ্র পিতা জমি বিক্রি এবং ধারদেনা করে দেড় বছর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা পাঠায় একমাত্র ছেলে ইমরানকে। সেখানে গিয়ে স্থানীয় অরেঞ্জফার্ম এলাকায় একটি দোকান দেয় ইমরান। বেশ ভালোই চলছিল ব্যবসা। কিন্তু ধার করা টাকা পরিশোধের আগেই জীবন দিতে হয়েছে তাকে।

গত সোমবার (২১ অক্টোবর) রাতে বন্দুকধারী একদল ডাকাত এসে হানা দেয় তার দোকানে। সর্বস্ব লুট করে দোকান আটকে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় তারা। এ সময় দোকানের ভেতর আটকা পরে দগ্ধ হন ইমরান। গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে অন্য প্রবাসীরা তাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার (২৩ অক্টোবর) বাংলাদেশ সময় ভোরে তার মৃত্যু হয়।