বার্তা পরিবেশক, অনলাইন :: মুশফিকুর রহিম এবারের বঙ্গবন্ধু বিপিএলে খেলবেন প্রিমিয়ার ব্যাংক খুলনা টাইগার্সে। দেশের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যানকে দলে নিয়ে দারুণ খুশি খুলনার দলটি।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) দেশি খেলোয়াড়দের ‘এ প্লাস’ ক্যাটাগরিতে ক্রিকেটার ছিলেন মাত্র চারজন—মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ ও মাশরাফি বিন মুর্তজা। এঁদের মধ্যে প্রথম দফাতেই দল পেয়ে যান মুশফিক। প্রথম সুযোগেই তাঁকে দলে নিয়ে নেয় খুলনার দলটি।

মুশফিকের মতো ব্যাটসম্যানকে পেয়ে খুলনা টাইগার্সের কর্মকর্তাদের মুখে দেখা গেল বিজয়ীর হাসি। এই দলের সঙ্গে থাকা জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ তো বলেই দিলেন মুশফিককে দলে নিজেদের ভাগ্যবান মনে করছেন তারা।

মুশফিক ছাড়াও দলটিতে আছেন রাইলি রুশো ও রবি ফ্রাইলিংকের মতো তারকারা। কিন্তু নিলাম শেষে মুশফিকের নামটিই বারবার জোর দিয়ে বলেছেন খালেদ মাহমুদ, ‘আমরা যেভাবে ভেবেছিলাম অভিজ্ঞ ও তারুণ্যের সংমিশ্রণে একটি দল গঠন করব। আমরা সেটা পেরেছি। আমরা ভাগ্যবান রাইলি ও মুশফিকের মতো দুইজন অভিজ্ঞ খেলোয়াড় পেয়েছি। যারা মাঠে দলটা পরিচালনা করতে পারবেন। ফ্রাইলিঙ্ক ও মোহাম্মাদ আমিরের মতো ফাস্ট বোলার আছে। এছাড়া যারা আছে, তারা মাঠে খুবই উদ্যমী থাকে।’

সর্বশেষ বিপিএলে চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে ১৩ ম্যাচে ১৩৯.২২ স্ট্রাইক রেটে ৪২৬ রান করেছিলেন মুশফিক। রানের দিক থেকে এটি ছিল মুশফিকের দ্বিতীয় সফল বিপিএল। এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে জাতীয় দলের জার্সিতে মুশফিকের ব্যাট হেসেছে। আর সাকিব আল হাসান না থাকায় সব মিলিয়ে দলগুলোর কাছে মুশফিক হয়ে উঠেছিলেন ‘হট কেক।’ নিলামে খুলনার যে প্রথম পছন্দ ছিল মুশফিক, তাও স্বীকার করেছেন খালেদ মাহমুদ, ‘আমরা জানতাম যে “এ” প্লাস ক্যাটাগরি থেকে একজনকে নিতে পারব। আমাদের প্রথম পছন্দ ছিল মুশফিক। আমরা ভাগ্যবান প্রথম ডাকেই তাঁকে নিতে পেরেছি।