বরিশাল: বরিশাল সরকারী ব্রজমোহন কলেজে বহিরাগত এবং কলেজ ছাত্রদের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কলেজের ফ্লাইট সার্জেন্ট ফজলুল হক হলের সামনে এ ঘটনা ঘটে। পরে কলেজের ফজলুল হক হলের আবাসিক ছাত্ররা মূল সড়কে এসে লাঠি সোটা নিয়ে বিক্ষোভ করে।

জানা গেছে, ব্রজমোহন কলেজের ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ১ম বর্ষের ছাত্র সাগরের সাথে একই বর্ষের রাকিবের একটি গ্রুপ গঠন নিয়ে দ্বন্দ চলে আসছিল। সেই দ্বন্দের পরিপ্রেক্ষিতে রাকিব কলেজ অডিটোরিয়ামের সামনে বসে সাগরকে মারধর করে। এতে সাগর প্রতিশোধ নিতে বহিরাগত বেশ কয়েকজনকে নিয়ে পুনরায় কলেজে প্রবেশ করলে রাকিবকে তারা ফজলুল হক হলের সামনে পেয়ে বেধরক মারধর করে। বিষয়টি হলের আবাসিক ছাত্ররা টের পেলে বহিরাগত ওই বখাটেগুলোকে ধাওয়া করলে দুই গ্রুপের মধ্যেই প্রথমে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। পরে পরিস্থিতি অনুকলে না থাকায় ঘটনাস্থল থেকে সটকে পরে বহিরাগত গ্রুপটি।

এরপরপরই কলেজের ফজলুল হক হলের আবাসিক ছাত্ররা লাঠি সোটা নিয়ে কলেজে মহড়া দেয় এবং কলেজের সামনে মূল সড়কে এসে ঘন্টাব্যাপী বিক্ষোভ করে। পরে স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা ও কোতয়ালী পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাদের নিবৃত্ত করলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

পরে হলের ছাত্ররা কলেজের অধ্যক্ষর কাছে বহিরাগত প্রবেশ ঠেকাতে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেণ।

এবিষয়ে কোতয়ালী মডেল থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) অরবিন্দ বিশ্বাস জানান, ঘটনাস্থলে গিয়ে ছাত্রদের নিবৃত্ত করে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে।

বরিশাল সরকারী ব্রজমোহন কলেজের অধ্যক্ষ স.ম ইমানুল হাকিম বলে, ঝামেলার খবর শুনেছি ছাত্রদের কাছ থেকে। বিষয়টি গুরুত্বসহকাওে দেখা হচ্ছে।