৩ ঘণ্টা আগের আপডেট রাত ৩:৩৩ ; মঙ্গলবার ; ডিসেম্বর ৬, ২০২২
EN Download App
Youtube google+ twitter facebook
×

রোষানলে বিসিসি মেয়র কামাল

বরিশাল টাইমস রিপোর্ট
১১:৪৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১, ২০১৮

বরিশাল বিএনপির রাজনীতিতে ক্রমশই মূল্যহীন হয়ে পড়েছেন সিটি মেয়র আহসান হাবিব কামাল। বিএনপি-যুবদল-ছাত্রদলের মূল ধারার নেতা-কর্মী এমনকি সমর্থকরাও তাকে “বিএনপির কেউ নন” বলে আখ্যায়িত করতে চায়। যা একাধিক রাজনৈতিক কর্মসূচিতে প্রকাশ্যে কামাল-বিরোধী শ্লোগান ও তাকে নাজেহাল-লাঞ্ছিতে মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে। গতকাল রোববারও সদর রোডে মাঝ রাস্তায় যুবদল-ছাত্রদল নেতা-কর্মীরা তাকে দালাল, ভুয়া বলে কটূক্তি করে।

একপর্যায়ে তাকে নিয়ে ধস্তাধস্তি পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ারের হস্তক্ষেপে ক্ষুব্ধ নেতৃবৃন্দেরর হাত থেকে রক্ষা পান তিনি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, পেছন তাকে ধাক্কাও দেওয়া হয় কামালকে। সরোয়ার না থাকলে হয়তো আরো বেশি বেকায়দা পরিবেশ সৃষ্টি হতো সেখানে। ক্ষুব্ধ একাধিক নেতা অভিযোগ করে বলেন, সাধারণ নেতা-কর্মীরা যখন রাজনৈতিক মামলায় হাজিরা দিতে দিতে দিশেহারা, কামাল তখন ব্যস্ত আওয়ামী লীগের সঙ্গে আঁতাত করে কমিশনের টাকা গোনায়। বিএনপির সাইনবোর্ডে মেয়র হয়ে চোখে কাঠের চশমা পড়েছেন।

যাদের শ্রম-অর্থে আজ তিনি মেয়রের চেয়ারে, তাদের চিনতেই পারছেন না। দলের অপর একটি সূত্র দাবি- কামাল দলের সাথে বেঈমানী করলেও স্বার্থের কারণে তাকে সাপোর্ট করেন অ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার। সুবিধা বঞ্চিত নেতা-কর্মীরা সরোয়ারের সামনে কামালের বিষেদাগার করলে উল্টো ধমক দেন। সিটি কর্পোরেশনের উন্নয়ন কাজের পার্সেন্টিজের ভাগ পান বলেই কামালের প্রতি তার দয়া প্রকাশ পায়।

সূত্রমতে- অ্যাড. সরোয়ার নেতা-কর্মীদের নিয়ে বেলা ১২টার দিকে সদর রোড টাউন হলের সামনে প্রেসক্লাব এলাকায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি সংবলিত লিফলেট বিতরণ করছিলেন। হঠাৎ জনা বিশেক লোক নিয়ে সেখানে হাজির হয়ে আলাদা করে লিফলেট দিতে শুরু করেন পদহীন নেতা কামাল। তাকে দেখেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন সরোয়াের সঙ্গীরা। একে অন্যের সাথে তাকে নিয়ে বিষেদগার করেন।

একপর্যায়ে ছাত্র-যুবদল নেতারা মেয়র কামালকে দালাল, ভুয়া বলে কটুক্তি করে। কামাল অনুসারিরা পাল্টা জবাব দেয়ার চেষ্টা করলে বাকবিতন্ডা হয় দুই পক্ষের। এসময় কামালকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। অবস্থা বেগতিক দেখে যুগ্ম মহাসচিব সরোয়ার নেতা-কর্মীদের শান্ত করেন। সিটি নির্বাচনে মেয়র হওয়ার পর আ.হা. কামাল দলীয় নেতা-কর্মীদের খোঁজ নেননি। যে খবর কেন্দ্রে পৌছালে দলে গুরুত্বহীন হয়ে পড়েন।

দলীয় কোন সংগঠনেও পদ নেই তার। যে কারণে এখানকার বিএনপির বৃহৎ অংশের চক্ষুশূলে পরিণত হন কামাল। গত বছর নগরীর অশ্বিনী কুমার হলে অনুষ্ঠিত একটি কর্মসূচিতে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে নেতা-কর্মীরা কামালের পল্টিবাজি তুলে ধরেন। এছাড়া চলতি বছর কেন্দ্রীয় নেতাদের লঞ্চে এগিয়ে দিতে গিয়ে সেখানেও নেতৃবৃন্দের রোষানলে পড়েন কামাল।”

Other

 

আপনার মতামত লিখুন :

 
ভারপ্রাপ্ত-সম্পাদকঃ শাকিব বিপ্লব
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮ | বরিশালটাইমস.কম
বরিশালটাইমস মিডিয়া লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান।
ইসরাফিল ভিলা (তৃতীয় তলা), ফলপট্টি রোড, বরিশাল ৮২০০।
ফোন: +৮৮০২৪৭৮৮৩০৫৪৫, মোবাইল: ০১৮৭৬৮৩৪৭৫৪
ই-মেইল: [email protected], [email protected]
© কপিরাইট বরিশালটাইমস ২০১২-২০১৮
টপ
  ছাত্রলীগ ছেড়ে ছাত্রদলে তারা  পুলিশের সামনে থেকে তুলে নিয়ে যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা  শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে টাইব্রেকারে স্পেনকে হারিয়ে শেষ আটে মরক্কো  বিয়ের হুমকি দিলেন স্বামী: ২ সন্তানকে পুড়িয়ে মারলেন মা  লাখ টাকায় বিক্রি প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর!  স্বামীর টাকা ও স্বর্ণালঙ্কারসহ প্রেমিকার হাত ধরে উধাও স্ত্রী  আ.লীগ অফিস ভাঙচুর: গ্রেফতার আতঙ্কে বাড়িছাড়া বিএনপি নেতাকর্মীরা  ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হয়ে দায়িত্বভার নিলেন বাইশারী কলেজের নতুন সভাপতি গোলাম ফারুক  বরগুনা/ ছেলে মারা যাওয়ার ৪ বছরেও শাশুড়িকে ঘরে উঠতে দিলেন না পুত্রবধূ  বিএনপির ১৫০০ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তারের অভিযোগ